অঞ্জন মিত্রের মৃত্যু নিয়ে এমন কথাই বললেন বাবলু’দা! শুনলে আপনার চোখেও জল আসবে

বলা যেতে পারে মোহনবাগানে একটা যুগের অবসান হল। গতকাল রাত তিনটে নাগাদ শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন অঞ্জন মিত্র। বাগানের প্রাক্তন সচিবের মৃত্যুতে গোটা ক্লাব তাঁবু জুড়ে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

Image result for Anjan Mitra"

মোহনবাগান ক্লাবে অঞ্জন মিত্রের অবদান সম্পর্কে বলতে গিয়ে মোহনবাগানের প্রাক্তন তারকা সুব্রত ভট্টাচার্য বললেন, “কোনওদিন কোনও বাজে কথা বলেননি। দল খারাপ পারফলম্যান্স করলে তিনি হয়ত দুঃখ পেতেন, কিন্তু কখনই বাজে ব্যবহার করতেন না।”

Image result for Anjan Mitra"

প্রসঙ্গত, এই অঞ্জন মিত্রের হাত ধরেই ক্লাবে পা রেখেছিলেন মোহনবাগানের ঘরের ছেলে সুব্রত ভট্টাচার্য। তিনি আরও যোগ করেন, “ধীরেনদা-র যদি যোগ্য কোনও উত্তরসূরী থাকে মোহনবাগান প্রশাসক হিসেবে তাহলে সেটা নিশ্চিতভাবেই অঞ্জন’দা। তবে শেষ কিছু বছর ধরে তিনি অসুস্থ হয়েছিলেন। এখন তো আর বাঁচানো গেল না। মোহনবাগানের লোক ছিলেন। ক্লাবের ভালো-মন্দ সবসময়েই ভাবতেন তবে উত্তেজিত হয়ে কখনও চেঁচামেচি করতেন না।”

Image result for Anjan Mitra and Deborata Sarkar"

অন্যদিকে শোকস্তব্ধ শোকস্তব্ধ ইস্টবেঙ্গল কর্মকর্তা দেবব্রত সরকার। ফুটবল ময়দানে তাঁদের সম্পর্ক আদায়-কাঁচকলায় হলেও ব্যক্তিগত সম্পর্ক তাঁদের যথেষ্ট ভালো ছিল। নীতু’দা বললেন, ”অঞ্জনবাবু মোহনবাগান ক্লাবের ছিলেন, দূরত্ব সেই সুবাদে ছিল নিঃসন্দেহে। মোহনবাগান-ইস্টবেঙ্গলের জন্য মতপার্থক্যও ছিল। তবে একটা জায়গায় আমরা একমত ছিলাম, সেটা ওঁর ফুটবল প্রোমোট করা। উনি ফুটবলকে সবার আগে রাখতেন। এই জায়গাতেই আমরা একসঙ্গে লড়াই করতাম। ISL-এর প্রশ্নেও উনি অনড় ছিলেন। ফ্র্যাঞ্চাইজ়ি হিসেবে খেলবে না মোহনবাগান ও ইস্টবেঙ্গল।”

Leave A Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *